কিভাবে অল্প সময়ে তুমি একজন দক্ষ এক্সরে টেকনিশান হতে পারো?

একজন এক্সরে টেকনিশিয়ান হিসেবে তোমার চাকরি জীবন যেমন ঝুঁকিপূর্ণ তেমনই আবার বহুমুখী যেখানে জীবনের বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ক্ষেত্রে তোমার পুরস্কৃত হওয়ারও সম্ভবনা রয়েছে। তাই বর্তমানে ছাত্র ছাত্রীদের সার্চ ইঞ্জিনের কাছে একটাই জিজ্ঞাসা থাকে আর তা হলো, “হাউ ক্যান আই অপ্ট ফর এ সার্টিফিকেট কোর্স ইন X ray টেকনিশিয়ান?”. যা তোমাকে অল্প সময়ে একজন দক্ষ এক্সরে টেকনিশিয়ান হতে সাহায্য করবে।

এক্সরে টেকনিশিয়ান সার্টিফিকেট কোর্সে ভর্তি হওয়ার জন্য কি কি পূর্ববর্তী যোগ্যতা থাকা প্রয়োজন ?

একটি নামি প্রতিষ্ঠান এ যদি তুমি এক্সরে টেকনিশিয়ান সার্টিফিকেট কোর্স এ ভর্তি হতে  তোমার জেনে রাখা ভালো যে এই কোর্সটি নিয়ে পড়াশুনা করতে গেলে কিছু নুন্যতম শিক্ষা যোগ্যতা তোমাকে অর্জন করতে হবে, তবে তা বিভিন্ন ধরণের কোর্স এর জন্য বিভিন্ন হয়ে থাকে।

যদি তুমি এক্সরে টেকনিশিয়ান কোর্স এ ডিপ্লোমা করতে চাও তো সেক্ষত্রে তোমাকে বিজ্ঞান বিভাগে পড়াশুনা করে উচ্চমাধ্যমিক স্তর উত্তীর্ণ হতে হবে এবং পদার্থবিদ্যা, রসায়নবিদ্যা আর জীববিদ্যা এই তিনটি বিষয় অবশ্যই তোমার পাঠক্রম এর অন্তর্ভুক্ত থাকতে হবে. সর্বোপরি তোমার একটি ন্যূনতম নম্বর থাকা প্রয়োজন উচ্চমাধ্যমিকে, সাধারণভাবে তা ৫০ শতাংশ বটে তবে এই নম্বর এর মান বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে বিভিন্ন।

তবে গুগল থেকে জানা যায়, অধিকাংশ ছাত্রছাত্রীরই তার কাছে প্রশ্ন থাকে যে, হোয়াট ইস দা এলিজিবিলিটি ক্রাইটেরিয়া ফর সার্টিফিকেট কোর্স ইন x ray টেকনিশিয়ান?” যদি তোমার মধ্যে এই একই প্রশ্ন থাকে তো এক্ষেত্রে বলা যেতে পারে যে সার্টিফিকেট কোর্স এর জন্য নিদেনপক্ষে তোমাকে উচ্চমাধ্যমিক পাশ হতে হবে.

যদি তুমি তোমার স্নাতক স্তরের পড়াশুনার জন্য এক্সরে টেকনিশিয়ান কোর্সটি বেছে নাও তো সেক্ষত্রে ডিপ্লোমা কোর্সের মতোই তোমাকে উচ্চমাধ্যমিকস্তরে বিজ্ঞান নিয়ে পড়াশুনা করতে হবে এবং রসায়নবিদ্যা, জীববিদ্যা ও পদার্থবিদ্যা এই তিনটি বিষয় তোমার পাঠক্রম এর অন্তর্ভুক্ত করে তোমায় উত্তীর্ণ হতে হবে. উচ্চমাধ্যমিক স্তরে তোমার ৪৫ শতাংশ নম্বর থাকা অত্যাবশ্যকীয়।

একজন দক্ষ এক্সরে টেকনিশান হয়ে ওঠার জন্য তোমার কি কি প্রশিক্ষণ এর প্রয়োজন?

একজন দক্ষ টেকনিশিয়ান হিসেবে তোমাকে সবরকম এক্সরে মেশিন চালনা করতে জানতে হবে. এক্সরে টেকনিশিয়ানদের মূল কাজ হলো রেডিওগ্রাফির সাহায্যে তোমার শরীরের ভিতরকার বিভিন্ন অঙ্গপ্রতঙ্গের ছবি তোলা যা তোমার শরীরের ভিতরকার কোনো সমস্যার কথা ডাক্তারকে বুঝতে সাহায্য করবে তো সেক্ষত্রে তোমাকে সেই সব বিষয়ে পারদর্শী হতে হবে যা এক্সরে টেকনিশিয়ান হওয়ার জন্য জরুরি।

মূলত তোমাকে একজন এক্সরে টেকনিশিয়ান হিসেবে তখনই গণ্য করা হবে যখন এই সংক্রান্ত কোনো বিশেষ কোর্স তোমার করা থাকবে সে কোনো ডিগ্রী কোষে এ হোক কিংবা কোনো ডিপ্লোমা বা কোনো সার্টিফিকেশন কোর্স।

তোমার কাজের সময় তোমাকে বিশেষ ভাবে সতর্ক ও সংযত থাকতে হবে কারণ একজন এক্সরে টেকনিশিয়ান  হিসেবে তোমাকে প্রচুর পরিমানে রেডিও রেস এর সঙ্গে পরিচিত হতে হবে তো সেখজতে তোমার নিরাপত্তা তোমাকেই বজায় রাখতে হবে. তোমাকে ভীষণ ভাবে ধৈর্যশীল হতে হবে তার কারণ এক্ষেত্রে তোমাকে অনেক ধরনের রোগীদের সাথে ওঠা বসা করতে হবে।

তোমাকে এই চাকরির ক্ষেত্রে ভীষণ ভাবে টেকনোলজি ক্ষেত্রে পারদর্শী হতে হবে এবং  একটি বেসিক x ray টেকনিশিয়ান সার্টিফিকেট থাকতে হবে. সবথেকে বেশি যেটা করতে হবে তা হলো তোমাকে লোকজনের সাথে কথা বলে তাদের থেকে তাদের শারীরিক সুবিধা  ও অসুবিধার কথা জানার কৌশল রপ্ত করতে হবে.

কিভাবে তুমি বুঝবে কোন প্রশিক্ষণ কেন্দ্র তোমার জন্য সবচেয়ে ভালো ?

তুমি যদি একজন দক্ষ এক্সরে টেকনিশিয়ান হতে চাও তো সেক্ষত্রে সব দিক বিচার বিবেচনা করে তোমার এমনই কোনো প্রতিষ্ঠান বেছে নেওয়া উচিত যা তোমাকে সর্বত ভাবে সাহায্য করবে এক্ষেত্রে নিজের পসার তৈরী করার জন্য।

তুমি যখন এই বিষয়ে খোঁজ খবর করবে তার আগে অবশ্যই কোনো অভিজ্ঞ প্রাক্তনীর সাথে তোমার পরামর্শ করে নেওয়া উচিত যে এই বিষয় নিয়ে পড়াশুনা করেছে, সে তোমাকে এই সংক্রান্ত সবচেয়ে উন্নত পাঠক্রমটি কি এবং তা কোন প্রতিষ্ঠান তোমাকে সবচেয়ে ভালো শেখাতে পারবে সে বিষয়ে অবগত হতে পারবে।

এছাড়াও বর্তমানে তো তুমি বিভিন্ন উল্লেখযোগ্য প্রতিষ্ঠান গুলির নিজস্ব অনলাইন ওয়েবসাইট গুলি তাই তাদের শিখ্যামূলক পাঠক্রম সংক্রাত সমস্ত রকম পাঠক্রমেরই খোঁজ পেয়ে যাবে তাই তাড়াহুড়োর বসে কোনোরকম সিদ্ধান্ত নেয়ার আগে অংশসই এই দিকগুলি তোমার ভেবে দেখা উচিত কারণ এগুলি তোমার চাকরিক্ষেত্রে তোমাকে উন্নতি করতে সাহায্য করবে।







    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.